সর্বশেষ

নির্বাচনী ট্রেন বিএনপির স্টেশনে থামবে না: ওবায়দুল কাদের

জানুয়ারি ৬, ২০১৮

অনলাইন ডেস্ক:  আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সময় ও স্রোত কারও জন্য অপেক্ষা করে না। আগামী (একাদশ) সংসদ নির্বাচনও কারও জন্য অপেক্ষা করবে না। নির্বাচনী ট্রেন বিএনপির স্টেশনে থামবে না। বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলে তাদের রাজনৈতিক ভবিষ্যত অন্ধকার হয়ে যাবে। বিরল প্রাণীর মতো বিলুপ্ত হয়ে যাবে বিএনপি। তাদের অবস্থা মুসলিম লীগের চেয়েও খারাপ হয়ে যাবে। নির্বাচনে না আসা হবে বিএনপির আরেকটি আত্মহত্যার সামিল। আজ বিকালে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সমাবেশে তিনি একথা বলেন।

মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও এনামুল হক শামীম, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ, মহানগরের ডা. দীলিপ রায়, কামাল চৌধুরী, হেদায়েতুল ইসলাম স্বপন, আকতার হোসেনসহ আরও অনেকে। এছাড়াও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

জনসভায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ড. কামাল হোসেন ও খালেদা জিয়া সরকার ও সংসদকে অবৈধ হিসেবে অভিহিত করেছেন। কিন্তু বিশ্বের দুটি বড় আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়ন (আইপিইউ) ও কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশন (সিপিএ) বাংলাদেশের পার্লামেন্টকে স্বীকৃতি দিয়েছে। শুধু তাই নয়, এ দুটি সংস্থার প্রধানও করা হয়েছে সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী ও বাংলাদেশের সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন  চৌধুরীকে। তাহলে কীভাবে গণতন্ত্রের সংকট আছে? আপনারা নির্বাচনে অংশ নেননি। গণতন্ত্র যদি না থাকতো তাহলে কী তারা বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিতো?

পদ্মা সেতুকে জোড়াতালি দিয়ে বাসানো হচ্ছে বলে খালেদা জিয়ার মন্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, সেখানে পিলার উঠেছে, পিলারের ওপরের দুটি স্প্যান বসেছে, এটাতো এখন দৃশ্যমান। আর সেতুতে তো জোড়াতালি লাগবেই, জোড়াতালি ছাড়া তো সেতু হবে না। জোড়াতালি ছাড়া কি সেতু হয়? খালেদা জিয়ার ‘পদ্মা সেতুতে কেউ উঠবে না’ মন্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, পদ্মা সেতুতে সবাই উঠবে, উনি না উঠলে ফেরি আছে, ফেরিতে করে যেতে পারেন। ‘সাবমেরিন উদ্বোধনের পরই ডুবে গেছে’ খালেদা জিয়ার এমন মন্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সাবমেরিন তো ডুবেই থাকে। মামলায় হাজিরা দিতে দিতে উনার (খালেদা জিয়ার)  মাথা নষ্ট হয়ে গেছে। তাই তিনি এসব বলেছেন।

শনিবার (৬ জানুয়ারি) বিএনপির ডাকা আন্দোলন কর্মসূচির প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নেতাদের ক্ষোভ- কর্মীরা মাঠে নামে না। কর্মীদের ক্ষোভ- নেতারা মাঠে নামে না। নেতারা বলে কর্মীরা, আবার কর্মীরা বলে নেতারা। তাহলে কাল তাদের বিক্ষোভ করবে কে? কিছু কর্মী মাঝে মাঝে রাস্তায় নামলেও নেতারা এসি রুমে বসে হিন্দি ছবি দেখে সময় কাটান। তাদের ডাকে আর আন্দোলন হবে না। মরা গাঙ্গে জোয়ার আসবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

​Leave a Comment